জয়ফল এবং একটি করুন পরিনতি


কালো জাদু এমন এক ধরনের চর্চা যা অন্যের অনিষ্ট সাধনে কিংবা নিজের স্বার্থ সিদ্ধির জন্যে করা হয়। এটি অতি খারাপ ও অশুভ শক্তির সংশ্লিষ্টতা । কালো জাদু সাধারনত অতিমানবীয় শক্তি দ্বারা করা হয় । তবে অনেকে বলেন এতে ভূত, জিন ব্যবহার করা হয় । অর্থাৎ বলা হয়ে যে কালো জাদু দিয়ে ভুত, প্রেত, জিন ইত্যাদি বশ করে তাদের দিয়ে নানা কাজ করা যায়। 



সেই রকম এক কালো জাদুর বলি হলেন জয়ফল পাগলী। তার বাড়ি চাঁদপুর জেলার মতলব উত্তর উপজেলার বারহাতিয়া গ্রামের শিকদার বাড়ি।গরীব ঘরের মেয়ে বাবা-মার কাছে থাকতো। শোনা যায় ছোট বেলা থেকেই জয়ফল অনেক বেশি সহজ সরল মানুষ এবং দেখতে সুন্দর ছিলেন। যখন সে কিশোরী বয়সে পদার্পণ করে দেখতে আরো রুপসী হয়ে উঠে।তখন এলাকার অনেকের নজরে পড়ে যায়। অবলা মেয়ে দেখে অনেকেই অনেক রকম প্রস্তাব করে কিন্তু কারো কথায় তিনি কান দিতেন না। এক সময় মানুষের কু প্রস্তাব রাজি না হওয়ায় কেউ একজন প্রেমের সম্পর্কর নাম করে তাকে জাদু টোনা করে। তারপর থেকেই সে পাগল হয়ে যায়। পাগল হওয়ার পর এলোমেলো চুলে রাস্তায় রাস্তায় ঘুরে বেড়ায়। 

মতলবের রাস্তায় রাস্তায় এমন কেউ নেই যে তাকে এখনো ঘুরে বেড়াতে দেখে নি। কখনো বক বক করতে, কখনো টাকা দে, টাকা দে বলে চিৎকার করতে। আশেপাশের এলাকার মানুষ যা দেয় তাই খেয়ে বেঁচে আছেন।পাগল হলে কি হবে সিগারেট ধরিয়ে ধোয়া ছাড়ে সেই রকম ভাবে হাটতে দেখা যায়। এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা যায় পাগল থাকা কালীন অনেকেই তার সঙ্গে নানা ভাবে কুকর্ম সাধন করে।

এলাকাবাসী জানান, সে কিশোরী বয়স থেকেই পাগল। সব সময় মানুষের কাছে যা পায় তাই খেয়ে বেঁচে আছেন। তবে সে খুবই ভালো এবং নিড়ীহ একজন মানুষ।


কালো জাদুর কি খারাপ ফল তা জয়ফল না দেখলে বিশ্বাস হবে না। মানুষ তার কুক্রম কে সাধন করতে কত কিছু ই না করতে পারে। কালো জাদু নিয়ে আমাদের প্রিয় নবী রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম কঠোর হুশিয়ারি ঘোষণা করেছেন। হাদিসে এসেছে- যে ব্যক্তি গণক, জ্যোতিষীর কাছে গিয়ে ভবিষ্যত সম্পর্কে জানতে চায়, চল্লিশ দিন পর্যন্ত তার নামাজ কবুল হয় না (নাউজু বিল্লাহ)অন্য হাদিসে এসেছে, ‘জ্যোতিষী হলো গণক; আর গণক হলো জাদুকর।

Post a Comment

0 Comments