চাঁদপুরের বাজার দখলে রংপুরের বিখ্যাত হাড়িভাঙ্গা আমে

চাঁদপুরের বিভিন্ন বাজারে এসেছে রংপুরের বিখ্যাত হাড়িভাঙ্গা আম। অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার ফলন ভালো হলেও, করোনা পরিস্থিতির কারণে বিক্রি নিয়ে দুঃশ্চিন্তায় বাগান মালিকরা। তবে বিআরটিসি’র মাধ্যমে আম পরিবহনের বিশেষ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে রংপুর জেলা প্রশাসন। মূলতো রংপুর জেলা প্রশাসনের সহায়তায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল তথা চাঁদপুরেও এসেছে হাড়িভাঙ্গা আম।

রংপুরের হাড়িভাঙ্গা আমের চাহিদা দেশজুড়ে। চাহিদা আর দাম ভালো পাওয়ায় এ অঞ্চলে দিনদিন বাড়ছে এর চাষ। কৃষি নির্ভর রংপুরের অনেক মানুষের ভাগ্য ফিরিয়েছে এই হাড়িভাঙ্গা আম। তবে এবারের পরিস্থিতি ভিন্ন।

এবছর জেলায় ১ হাজার ৭৫০ হেক্টর জমিতে হাড়িভাঙ্গা আমের বাগান করা হয়। ঘূর্ণিঝড় আমফানের সময় ব্যাপক ক্ষতির পরও, লক্ষ্যমাত্রার প্রায় ২৬ হাজার মেট্রিকটন বেশি আম উৎপাদন হয়েছে। ফলন ভাল হলেও, করোনা পরিস্থিতিতে বাজারজাত করা নিয়ে দুঃচিন্তায় কৃষকরা।

হাট-বাজার ও আড়তে ক্রেতা নেই আগেরমত। রয়েছে পরিবহন সংকট। তবে কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের মাধ্যমে অনলাইনে চাহিদার ভিত্তিতে মিঠাপুকুর উপজেলার ৪টি হাটে আম সরবরাহের কথা জানালেন জেলা প্রশাসক। বিআরটিসি’র মাধ্যমে আম পরিবহনের কথাও জানান তিনি।

আম বাজারজাত করতে কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকেও উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানান কৃষি কর্মকর্তারা। 

আঁশহীন সুস্বাদু এই আম সংরক্ষণে বিভিন্ন পরিকল্পনার কথাও জানান কৃষি বিভাগের উপ পরিচালক।

সমগ্র চাঁদপুরেই এই সুস্বাদু আমের ব্যাপক চাহিদা থাকলেও করোনা পরিস্হিতির জন্য খুব বেশি আম আনতে পারেননি চাঁদপুরের ব্যবসায়ীরা। 

Post a Comment

0 Comments