দেশে পাহাড়ী কৃষকদের সহায়তা করতে তৈরি হচ্ছে আনারস চিপস

রাঙামাটি এলাকার বিভিন্ন জায়গার কৃষকরা প্রায়ই তাদের ফসলের ন্যায্য মূল্য পান না। পাহাড়ি সে সকল কৃষকদের সহায়তা করতে দেশে এবার তৈরি হচ্ছে আনারসের চিপস।

 

রাঙামাটিতে কৃষি সম্প্রসারন অধিদফতরের একটি প্রকল্পের অধীনে পরীক্ষামূলক ভিত্তিতে চিপস উৎপাদিত হচ্ছে।

আনুষঙ্গিক ও ঘন পুষ্টি সম্বলিত চিপসটির ৫০ গ্রামের একটি প্যাকেট ৩০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

প্রকল্পটির পরিচালক মেহেদী মাসুদ জানান, ওই অঞ্চলের ফলের মাত্রাতিরিক্ত উৎপাদন নিয়েও ন্যায্য মুনাফা না পাওয়া ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয় কৃষকদের বাঁচাতে এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল।

জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্য অনুযায়ী, এ বছর রাঙ্গামাটিতে ২ হাজার ১১০ হেক্টর জমিতে আনারসের আবাদ করা হয়েছিল।

শুধুমাত্র নানিয়ারচরে, ভিটামিন, এনজাইম এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ আনারস ফল ১২০০ হেক্টর জমি জুড়ে উৎপাদিত হয়েছিল।

৩৩০ বর্গকিলোমিটার উপজেলার উঁচু-নিচু পাহাড়ে বিভিন্ন জাতের আনারস জন্মে।

চাষের জন্য সর্বাধিক জনপ্রিয় প্রজাতি হলো হানি কুইন আনারস। এটির সুন্দর গঠন এবং স্বাদের কারণে বেশি চাষ হয়।

আমরা স্থানীয় চাহিদা মিটিয়ে দেশের বিভিন্ন জেলায় আনারস প্রেরণ করি," উপজেলার বগাছড়ি এলাকার কৃষক মোঃ বাচ্চু মিয়া বলেছিলেন।

এই উপজেলার এক হাজারেরও বেশি মানুষ এখন গ্রীষ্মমন্ডলীয় এই ফল উৎপাদনের সাথে জড়িত, এবং তারা এত আনারস উৎপাদন করে যে তাদের ক্রেতাদের সন্ধানে লড়াই করতে হয়েছে।

তিনি আরও যোগ করেন, "এ কারণেই আমরা এমন একটি কারখানা স্থাপনের দাবি জানিয়ে আসছি যা চিপস বা রস আকারে আমাদের আনারস প্রক্রিয়াজাত ও বিক্রয় করতে পারে।"

পাইলট প্রকল্প হিসাবে নানিরচরে আনারস চিপস কারখানাটি খোলা হয়েছিল বলে জানিয়েছেন ওয়াইআরএফপির পরিচালক মাসুদ।

তিনি আরও বলেন, পণ্যটি বাজার থেকে ভালো সাড়া পেলে সরকার বাণিজ্যিক উৎপাদনে যাবে।

নানিরচর উদ্যানতত্ত্ব কেন্দ্রের উপ-পরিচালক মোহাম্মদ শফিকুল ইসলাম জানান, এলাকার কৃষকরা তাদের উৎপাদনের ন্যায্য দাম পান না এবং প্রতি বছর বিপুল পরিমাণে বিক্রয়কৃত আনারস পচে যায়।

তিনি আরো বলেছিলেন, "স্থানীয় বাগান থেকে আনারস সংগ্রহ করার পরে আমরা যে চিপসগুলি তৈরি করি তাতে কোনও রাসায়নিক মিশ্রিত হয় না।"

উপজেলার বুড়িঘাট এলাকার কৃষক সুশান্ত চাকমা বলেন, "আমাদের জেলায় আনারস চিপস কারখানা থাকা আমাদের মতো কৃষকদের জন্য সুসংবাদ।"

তিনি আরো বলেন, আশা করি এই চিপগুলি তৈরি করতে কর্তৃপক্ষ আমাদের বাগানগুলি থেকে আনারস কিনে নিবে। তবে কৃষকদেরও ন্যায্য দাম পাওয়ার বিষয়ে খুব সতর্ক থাকতে হবে।

তিনি বলেন, সাধারণত আনারস স্থানীয় বাজারে এক টুকরো ২০-২৫ টাকায় বিক্রি হয় এবং বড় পরিসরে কেনার জন্য এক হাজার পিসের দাম চার হাজার থেকে পাঁচ হাজার টাকার মধ্যে বিক্রি হয়ে থাকে। 

Post a Comment

0 Comments