পাবজি গেম খেলে বাবার ১৬ লাখ টাকা ফুতুর করলো এক কিশোর

কিশোর ছেলের কাছে বাবার তিনটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের অ্যাক্সেস ছিল। তাই পাবজি খেলার টাকার জন্য তেমন বেগ পেতে হয়নি তার। পাবজির নেশায় বাবার তিনটি অ্যাকাউন্ট থেকে মোট ১৬ লাখ টাকা শেষ করেছে ওই ছেলে।


সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি জানিয়েছে, ১৭ বছর বয়সী ভারতে পাঞ্জাবের ওই কিশোর জনপ্রিয় গেমটি খেলার সময় বিভিন্ন পেইড অ্যাপ্লিকেশন নিয়ে ও গেম আপগ্রেড করতে ১৬ লাখ টাকা খরচ করেছে।

ওই কিশোর তার মায়ের ফোন থেকে পাবজি খেলতো। ছেলের হাতে দীর্ঘসময় ফোন দেখে মা বকাবকি করলে, পড়াশোনার জন্য তাকে দীর্ঘসময় মোবাইল ব্যবহার করতে হচ্ছে বলে সে জানাতো। যদিও সে ওই সময় তার বন্ধুদের সঙ্গে পাবজি খেলতো।

অ্যাপ্লিকেশন কেনার পাশাপাশি, গেমটি খেলতে গিয়ে সে টিমমেটদের জন্য আপগ্রেডও কিনেছিল বলে জানা গেছে। যদিও সে কোনোদিন বাবা মাকে গেম খেলার জন্য অর্থ খরচের কথা জানায়নি।

এমনকি ফোনে ব্যাংক থেকে মেসেজ এলে সেগুলো ডিলিট করে দিত। তবে ব্যাংকের বই আপডেট করার পর তার বাবা বুঝতে পারেন যে ১৬ লাখ টাকা তার ছেলে নষ্ট করে ফেলেছে।

ওই কিশোরের বাবা একজন সরকারি চাকুরীজীবি। তিনি ছেলের ভবিষ্যৎ ও চিকিৎসার জন্য ওই টাকা জমিয়ে রেখেছিল। কিশোর যখন পাবজি খেলতো তখন তার বাবার পোস্টিং অন্য জায়গায় ছিল। আর মায়ের পক্ষেও ছেলের এই কীর্তি ধরা সম্ভব হয়নি।

জানা জানি হওয়ার পর ওই কিশোরের পরিবার পুলিশের কাছে সাহায্য চাইলেও, পুলিশ তাদের কোনো সাহায্য করতে পারিনি। কারণ গেম কোম্পানি ভুলভাবে কোনো অর্থ নেয়নি।

Post a Comment

0 Comments