এবার বসতবাড়িতেই গাঁজা চাষ করলেন এক গৃহবধূ

বসতবাড়ির উঠানে গাঁজা চাষ করতেন গৃহবধূ সুজি। শুকনো গাঁজা ও চারা গাছ বিক্রির উদ্দেশ্যে চাষাবাদ শুরু করেন তিনি। কিন্তু ৬ মাস না পেরুতে স্থানীয় সূত্রে র‌্যাবের কাছে পৌঁছে যায় তার গাাঁজা চাষের খবর।


খবর পেয়েই ৭ জুলাই মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে গাঁজা চাষী সাজুদ বেগম সুজির বাড়িতে র‌্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্পের সদস্যরা পৌঁছে যান। বাড়ির উঠানেই দেখতে পান গাাঁজা গাছ। পরে ৭টি গাঁজা গাছ ও ৩০০ গ্রাম শুকনো গাঁজাসহ ওই নারীকে গ্রেফতার করা হয়। সাজুদা বেগম উপজেলার সোনারামপুর গ্রামের গোলাইলবাগ এলাকার বাসিন্দা।

এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে আশুগঞ্জ থানায় মাদক আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গ্রেফতার সুজেদা বেগম র‌্যাবকে জানায়, তার বাবা জাহেদ মিয়ার বাড়ি হবিগঞ্জের মাধবপুর উপজেলায়। প্রয়াত স্বামী বাবুল মিয়ার বাড়ি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ার বনগ্রামে। প্রায় পাঁচ-ছয় মাস আগে বিক্রির জন্য তিনি গাঁজার গাছ লাগিয়েছিলেন।

এদিকে র‌্যাব-১৪ ভৈরব ক্যাম্পের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব ভৈরব ক্যাম্পের কোম্পানি অধিনায়ক ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রফিউদ্দীন মোহাম্মদ যোবায়েরের নেতৃত্বে সোনারামপুরে ওই নারীর বাড়িতে অভিযান চালানো হয়। এ সময় ওই বাড়ি থেকে সাতটি গাঁজার গাছ ও শুকনো গাঁজা জব্দ করা হয়।

Post a Comment

0 Comments