লকডাউনে বাংলাদেশ বিবাহ করার হার অবিশ্বাস্য ভাবে বেড়ে গিয়েছে

একদিকে যখন গোটা বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাসের প্রকোপ সাংঘাতিকভাবে দেখা দিয়েছেসেখানে এই কয়েক মাসের মধ্যে সারা বাংলাদেশে বিবাহ করার হার অবিশ্বাস্যভাবে বেড়ে গিয়েছে। তার কারণ হল কোভিড১৯ এর আতঙ্কে যুবক যুবতীরা বাড়িতেই নিজেদেরকে বন্দী করে রেখেছেন এবং অতিরিক্ত সময় কাটাচ্ছেন। বয়স বাড়ছে বিবাহ যোগ্য পাত্র পাত্রীর তাই চিন্তায় পড়ে গেছেন বাবা মায়েরা। যুবক যুবতীদের একা একা লাগে তাই তারা বিবাহের নেশার মেতেছেন। এমনই তথ্য দিয়েছে বিবাহ রেজিস্ট্রি অফিসগুলি।



বাংলাদেশে ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ থেকে শুরু হয়ে আজ  চলছে করোনা রুগীর সংখ্যা। করোনা ভাইরাস যাতে না ছড়াতে পারেতার জন্য তাই বাংলাদেশের শহরগুলিতেগ্রামে নাগরিকদের ঘরে থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া করোনা সংক্রমন থেকে বাঁচতে দেশের সমস্ত স্কুল-কলেজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। জনসমাগম এড়াতেই এই রকম সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।সরকারিভাবে মনে করা হচ্ছে যে বিবাহ করার আবেদন বেড়ে যাওয়ার কারণ হল করোনা ভাইরাসের আতঙ্কের কারণে যুবকযুবতীরা সবকিছু থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে বাড়ির মধ্যেই অতিরিক্ত সময় অতিবাহিত করছেন।


সুখবর যারা বিয়ে করতে চলেছেন তাদের জন্য। করোনা আতঙ্ক বিবাহের হার চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে। তবে সদ্য বিয়ে করা জুটিদের জন্য রয়েছে কিছুটা স্বস্তির খবর। সদ্য বিবাহিত যুবক যুবতীদের সাথে কথা বলে জানা যায় কম খরচে বিবাহ করার সুযোগ আর পাবোনা। তাই তাদের মাঝে বিবাহের প্রবনতা বাড়ছে।


পাশের দেশ ভারতে বিবাহের অনুষ্ঠানগুলি করতে অনুমতি দিয়েছেতবে কেবলমাত্র কিছু কঠোর নিয়মকানুন অনুসরণ করে। ১৩ মার্চ জারি হওয়া একটি বিজ্ঞপ্তির আংশিক সংশোধনীতে কমিশনারবিবিএমপি এখনও পর্যন্ত নির্দিষ্ট বিধি মেনে বিয়ের অনুমতিদিয়েছে। তবে নতুন এই বিজ্ঞপ্তি অনুসারেবিবাহ-কেন্দ্রহোটেলপার্টির স্থান ইত্যাদিতে যে সমস্ত বিবাহের অনুষ্ঠান হবে সেখানে উপস্থিত লোকসংখ্যা ১০০-এর বেশি যেন না হয়।

Post a Comment

0 Comments