মতলবে বিদ্যুৎ নিয়ে লুকোচুরি খেলা একবার বিদ্যুৎ গেলে ফিরে আসতে ভুলে যাচ্ছে


কোভিড - ১৯ এর কারনে এমনিতেই টালমাটাল সারা দেশের অবস্হা। তার মধ্যেই ভয়াবহ লোডশেডিং নিয়ে বিপাকে আছে মতলবের সাধারন জনগন।


প্রতি বছরই দেশে বিদ্যুৎ উৎপাদনের মাত্রা বেড়ে চলছে। নতুন বিদ্যুৎ সংযোগ ও হচ্ছে অনেক। চাঁদপুর জেলায়ও বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়ানোর কাজ চলছে। কিন্তু লোডশেডিং কোনো ভাবেই কমছেনা। বরং লোডশেডিং আরো ভয়াবহ রুপ নিচ্ছে মতলবে।

ঝড় বৃষ্টি দূরে থাক আকাশে সামান্য মেঘের আনাগোনা হলেই বিদ্যুৎ চলে যাচ্ছে কিন্তু ফিরে আসছেনা কয়েক ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও।

লকডাউনের কারনে বাড়িতে থাকা মতলবের এক শিক্ষার্থী জানান সারাদিনেও নিজের মোবাইলে ফুল চার্জ করতে পারছেন না। দিনে কয়েক দফায় বিদ্যুৎ চলে যায় কিন্তু থাকে খুবই কম সময়। 

মতলবের স্হানীয় বাসিন্দারা জানান দিন রাত বলে কোনো কথা নেই কম করে হলেও ৭ থেকে ৮ বার দিনে বিদ্যুৎ আসা যাওয়া করে।

তারা আরো বলেন দেশে এতো উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু মতলবে বিদ্যুৎ এর লোডশেডিং কমছেনা। তবে মতলব উত্তরের চাইতে দক্ষিনের অবস্হা কিছুটা ভালো। উত্তরে লোডশেডিং খুবই বেশি।

স্হানীয় জনগন আরো বলেন আমরা লোডশেডিং কমানোর জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাই। তারা আরো জানান আমরা এসব বলতে বলতে ক্লান্ত। দেশে বিদ্যুৎ এর উৎপাদনের পরিমান বারলেও লোডশেডিং কেনো কমেনা।

বিদ্যুৎ নিয়মিত না থাকলেও বিল আসছে ঠিকই বেশি। স্হানীয় জনগন ভেবে কিনারা করতে পারেননা বিল কি করে এতো বেশি আসে?

Post a Comment

0 Comments