মতলব দক্ষিণে গলায় ফাঁস লাগিয়ে নব বধুর আত্মহত্যা


 মতলব দক্ষিণের সীমা আক্তার (১৯) নামে এক নব-বধু বাপের বাড়ীতে আত্মহত্যা করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়নের পূর্ব ধলাইতলী গ্রামে ৮ জুলাই বুধবার বেলা আনুমানিক সাড়ে ১২টায়। এ সময় মাতা শাহানাজ বেগম বাড়ীতে ছিলেন না। পিতা মোঃ মোস্তফা মিয়া প্রবাসে থাকে। 

পারিবারিক ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, সীমা আক্তারকে কিছুদিন পূর্বে একই উপজেলার উপাদী উত্তর ইউনিয়নের নওগাঁও গ্রামের আক্তার হোসেনের সাথে বিবাহ দেন। তবে উভয়ের মধ্যে প্রেম ভালোবাসার সম্পর্ক ছিল। স্বামী আক্তার হোসেন স্থানীয় একটি মসজিদে ইমামতি করেন। ঐদিন সীমা আক্তার তার স্বামী মোঃ আকতার হোসেনসহ অপরিচিত ১ যুবকসহ তাদের বাড়ীতে আসে। কিছুক্ষন পর বসতঘরের বারান্দায় সীমা আক্তার গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে বলে পারিবারিক সূত্রে জানায়। তবে কেন সীমা আক্তার আত্মহত্যা করেছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তার মাতা শাহানাজ বেগম জানান, তাদের ভালোবাসার বিয়ে হলেও বিয়ের পর থেকেই তার স্বামী যৌতুকের জন্য বিভিন্ন সময়ে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করতো। আর এই ঘটনার জের ধরেই আমার মেয়ে সীমা আক্তারকে ফুসলিয়ে আমাদের বাড়ীতে এনে আত্মহত্যা করতে বাধ্য করে। 


উপাদী দক্ষিণ ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ সোহেল হোসেন রিয়াদ জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসেছি। তবে এ আত্মহত্যার পেছনে রহস্য রয়েছে। উভয়ের মধ্যে প্রেম ভালোবাসার বিয়ে হয়েছে। যৌতুকের জন্য এ ঘটনাটি ঘটেছে বলে বাড়ীর লোকজন জানান। এ খবর পেয়ে মতলব দক্ষিণ থানার অফিসার ইনচার্জ স্বপন কুমার আইচ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে যান তিনি জানান, তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য চাঁদপুরে প্রেরন করা হবে।

সূএ: মতলব প্রতিদিন

Post a Comment

0 Comments