'এমন স্বপ্নই বুনেছিলো ইন্টার'

 সেমি-ফাইনালে এমন সহজ জয়ের পর ফাইনাল জিততেও আত্মবিশ্বাসী লাউতারো। ম্যাচে শেষে স্কাই স্পোর্টস ইতালিয়াকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ আর্জেন্টাইন তারকা বলেন, 'এটা দুর্দান্ত একটি রাত, অনেকটা স্বপ্নের মতো। অনেক দিন থেকেই আমরা এর জন্য অপেক্ষা করছি। সেমি-ফাইনালের এ ম্যাচে আমরা প্রমাণ করেছি যে ইন্টার দারুণ কিছুর জন্য তৈরি। আমরা ফাইনালের জন্য প্রস্তুত।'


ইউরোপা লিগের সেমি-ফাইনালে আগের দিন শাখতার দোনেস্কের বিপক্ষে দারুণ জয় পেয়েছে ইন্টার মিলান। রীতিমতো তাদের উড়িয়ে দিয়ে ফাইনালে নাম লিখিয়েছে ইতালিয়ান ক্লাবটি। আর এমন জয়ের পর স্বাভাবিকভাবেই দারুণ উচ্ছ্বসিত তারা। দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড় লাউতারো মার্তিনেজ তো বললেন, 'এমন রাতের অপেক্ষাতেই ছিল ইন্টার।'

ম্যাচে জোড়া গোল পাওয়ায় নিজেরও আত্মবিশ্বাস বেড়েছে বলে জানান এ আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড, 'এ গোলগুলো আমার আত্মবিশ্বাস বাড়িয়েছে। মাঝে একটা সময় গিয়েছে তখন আমি আমার লেভেলে ছিলাম না। তবে এ অভিজ্ঞতা আমাকে সামনে এগিয়ে যেতে সাহায্য করবে। দলের এমন জয়ে আমি খুবই খুশী। আমরা প্রতি ম্যাচেই উন্নতি করছি। এবং আমার নিজের উন্নতিতেও খুব খুশী।'

এমনটা বলাও খুব স্বাভাবিক লাউতারোর জন্য। কারণ শেষ চারের লড়াইয়ে ৫-০ গোলের বিশাল জয়। প্রথম গোলটা আসে আবার নিজের পা থেকেই। পরে দিয়েছেন আরও একটি গোল। জোড়া গোল পেয়েছেন ছন্দে থাকা আরেক তারকা রোমেলু লুকাকুও। সবমিলিয়ে দলীয় এক জয়। এমন জয়ের পর আহ্লাদিত হতেই পারে দলটি।

এ জয়ে ফাইনালে সেভিয়ার বিপক্ষে লড়বে দলটি। এর আগে আরও পাঁচবার ফাইনাল খেলেছে স্প্যানিশ ক্লাবটি। প্রতিবারই শিরোপা জিতেছে তারা। এ আসরে সবচেয়ে সফল দলই তারা। অবশ্য ইন্টারের সাফল্যও এ আসরে বেশ সমৃদ্ধ। চারবার ফাইনালে উঠে তিনবার শিরোপা জিতেছে তারা।

সেমি ফাইনাল ম্যাচের ১৯তম মিনিটে লাউতারোর গোলে এগিয়ে যায় ইন্টার। প্রথমার্ধে তার গোলের লিড নিয়েই মাঠ ছাড়ে দলটি। তবে দ্বিতীয়ার্ধে যেন রুদ্ররূপে নামে তারা। আদায় করে নেয় চারটি গোল। ৬৪তম মিনিটে দানিলো ডি'আম্ব্রোসিও গোল করেন। এরপর ২০ মিনিটের ব্যবধানে আরও তিন গোল করে তারা। ৭৪তম মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন লাউতারো। এরপর ৭৮ ও ৮৩তম মিনিটে গোলদুটি করেন লুকাকু।

Post a Comment

0 Comments