কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক পাগলা মসজিদের দানবক্সে মিলল প্রায় পৌনে ২ কোটি টাকা

 কিশোরগঞ্জের শহরের হারুয়া এলাকায় অবস্থিত ঐতিহাসিক  মসজিদের দান বাক্স থেকে প্রতি তিন মাস পর মেলে কোটিটাকা। তবে করোনার কারণে ছয়মাস পর শনিবার মসজিদের ৮টি লোহার দানবক্স খোলা হয়। দিনভর গগনা শেষে টাকারহিসেব দাঁড়ায় প্রায় এক কোটি ৭৫ লাখ টাকা।


সারিবদ্ধ হয়ে শতাধিক শিক্ষার্থী  শিক্ষক গুনছেন নগদ টাকা। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি এমন ঘটনা ঘটেছে কিশোরগঞ্জেরঐতিহাসিক পাগলা মসজিদে।


এখানে দান করলে বেশি সওয়াব হয় এবং মানত করলে পূর্ণ হয় মনোবাসনা। এমন বিশ্বাস থেকে এখানে প্রতিনিয়ত নগদ টাকাগহনাবৈদেশিকগরু ছাগলসহ নানা সামগ্রী দান করে থাকেন নানা শ্রেণি-পেশা আর ধর্মের মানুষ।


মসজিদ  ইসলামী কমপ্লেক্সের খরচ চালিয়ে অবশিষ্ট টাকা জমা রাখা হয় ব্যাংকে। মসজিদের আয় থেকে জেলার বিভিন্নমসজিদ-মাদরাসা  এতিমখানার খরচ চলে বলে জানায় সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।


জনশ্রুতি আছেপাগলবেশী এক আধ্যাত্মিক ব্যক্তি নরসুন্দা নদীতে মাদুর পেতে ভেসে এসে বর্তমান মসজিদের কাছে ধ্যানমগ্নহন। ওই ব্যক্তির মৃত্যুর পর তার সমাধির পাশে এই মসজিদটি গড়ে উঠে। সরকারি ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত মসজিদটি 'পাগলামসজিদনামে পরিচিত।

Post a Comment

0 Comments