চাঁদপুরের কচুয়াতে নবম শ্রেনীর ছাএী গনধর্ষণের শিকার

চাঁদপুরের কচুয়াতে নবম শ্রেনীর ছাএী গনধর্ষণের শিকার


সমগ্র দেশে যখন গনধর্ষণের স্বীকার। তেমনি শেষ পর্যন্ত চাঁদপুরের কচুয়াতে ঈদের আগের দিন এক ছাএী গনধর্ষণের শিকার হয়পরে তার মৃতদেহ পাওয়া যায়।



কচুয়ায় ১৪ বছরের জান্নাতুল ফেরদৌস মিশু নামে এক স্কুল শিক্ষার্থী নিখোঁজ হওয়ার ৪৮ ঘন্টা পরে মৃতদেহ খুঁজে পাওয়া গেছে।গতকাল দুপুর সাড়ে ১১টায় কচুয়া উপজেলার ৯নং কড়ইয়া ইউনিয়নের বাসাবাড়িয়া গ্রামের একটি বিল থেকে মৃতদেহটি উদ্ধারকরা হয়।


মৃত মিশু বড় হয়ায়ৎপুর গ্রামের আবু হানিফের মেয়ে। সে স্থানীয় চাঁদপুর এম  খালেক মেমোরিয়াল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজেরশিক্ষার্থী। সে ছিল নবম শ্রেণীর শিক্ষার্থী।


মেয়েটি শুক্রবার দুপুরে বাড়ির পাশের রাস্তায়  ঘাস কাটতে যায়। সেখান থেকে দীর্ঘ তিন ঘন্টায় মেয়েটি বাড়িতে না ফেরায় বাড়িরলোকজন তাকে খোঁজাখুঁজি শুরু করে। শেষে ঘাস কাটার স্থলে গেলে সেখানে গিয়ে মেয়েটির ওড়নাকাস্তে এবং ওঁড়া দেখতে পায়কিন্তু মেয়েটিকে পাওয়া যায়নি। পরে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে মেয়েটিকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পায়নি। এমনকি ফায়ার সার্ভিসেরডুবুরি দল এসেও ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মেয়েটির হদিস পায়নি। রিপোর্টে দেখা গেলোমেয়েটি গনধর্ষণেরর স্বীকার হয়েছে।   


এতে মেয়েটির পরিবারের এবং কচুয়ার লোকজন কচুয়ার উন্নয়নের রুপকার স্বাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী .মহিউদ্দীন খান আলমগীরএবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের তথ্য  গবেষনা বিষয়ক সম্পাদক .সেলিম মাহমুদ এর সাহায্য চেয়েছেন এবং কচুয়া প্রশানেরনিকট দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন। অতি দ্রুত অপরাধীদের চিহ্নিত করে জোরালোভাবে  শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

Post a Comment

0 Comments