গণপরিবহণে পূর্বের ভাড়া ফেরাতে ব্যবস্থা নিচ্ছে সরকার

 মাস্ক পরিধান বাধ্যতামূলক এবং দাঁড়ানো অবস্থায় যাত্রী পরিবহন না করার শর্তে গণপরিবহণের আগের নির্ধারিত ভাড়ায় ফিরে যাওয়ার বিষয়ে সরকার চিন্তাভাবনা করছে বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এমপি। শিগগির এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানো হবে বলে জানান তিনি।


এর আগে পূর্বের ভাড়ায় বাসের সব সিটে যাত্রী পরিবহনের ব্যাপারে পরিবহন মালিকদের প্রস্তাব অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়কে চিঠি দিয়েছিল বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

মন্ত্রী আজ মঙ্গলবার সকালে নিজ বাসভবন থেকে কুমিল্লা সড়ক জোন, বিআরটিএ ও বিআরটিসি কর্মকর্তাদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে মতবিনিময়কালে একথা জানান।

গত ৩ আগস্ট ইস্যু করা এক বিজ্ঞপ্তি অনুসারে দেশের গণপরিবহন সীমিত আকারে যাত্রী পরিবহন করতে পারবে আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত। এই সময়ের আগে গণপরিবহনের কার্যক্রম স্বাভাবিকভাবে পরিচালনার জন্য মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকেই অনুমোদন নিতে হবে।

আজ ভিডিও কনফারেন্সে মন্ত্রী আরও বলেন, ‘রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে শেখ হাসিনা সরকার কূটনৈতিক প্রয়াস অব্যাহত রেখেছে। এ সংকটে বাংলাদেশের পরিবেশ, প্রতিবেশ এবং পর্যটন শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের আগ্রহ কমে গেলে ১১ লাখ অতিরিক্ত মানুষের চাপ বহন বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত কষ্টকর হবে।’

গত সপ্তাহে বাস মালিকরা মন্ত্রণালয় ও বিআরটিএকে পূর্বের ভাড়ায় স্বাভাবিকভাবে বাস পরিচালনার জন্য অনুমতি দিতে এক চিঠি দেয়। তারা দাবি করেছেন, দেশের করোনা পরিস্থিতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক হয়ে যাচ্ছে।

Post a Comment

0 Comments