সেপ্টেম্বরের ভিতরে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবি করছেন তাদের অধিকাংশই ক্যাম্পাসে প্রেমে জড়িত

 করোনা মহামারী কারনে শিক্ষার্থীদের সুস্থতার কথা চিন্তা করে গত মার্চ মাসে অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে যায় দেশেরবিশ্ববিদ্যালয়গুলো। করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়ায় সরকার কয়েক দফা ছুটি বাড়িযেছে। এতে যেমন বিপদে পরেছে HSC পরীক্ষার্থী তেমনি হতাশায় পরেছে স্কুল কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেমিক প্রেমিকারা।




অনেক সূত্র জানাচ্ছে,এই ছুটিতে বিপাকে যারা পড়েছে সেই শিক্ষার্থী প্লাস কাপল যুগোল একাংশ ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিকযোগাযোগ মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার জন্যে সরব হয়ে উঠেছে।


কিছু অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে লোমহর্ষক কাহিনীবিশ্ববিদ্যালয় খোলার দাবিতে যারা সরব হচ্ছেন তাদের অধিকাংশইক্যাম্পাসে প্রেমে জড়িত বলে দাবি করছে শিক্ষার্থীদের একাংশ। সোস্যাল মিডিয়া তে তারা চ্যাটিং করতে করতে বোর হয়ে উঠেছেতাই প্রিয়জনের সীসাক্ষাৎ পাওয়ার জন্য ব্যাকুল হয়ে উঠেছে।


ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের আবু কালাম বলেন,আমরা বিশ্ববিদ্যালয় অতিদ্রুত খেলা চাচ্ছি। না হলে আমাদেরপড়াশোনার ব্যাপক ক্ষতি হয়ে যাবে পাশাপাশি মনের প্রশান্তি চলে যাবে।


এই মহামারীর ভিতরে ফিজিক্যালি ক্লাস করা কতটা যৌক্তিক জানতে চাইলে তিনি বলেন,ক্যাম্পাস না খুললে আমার ব্যক্তিগতজীবন উথাল পাথাল হয়ে যাবে। সেই দায় কে নিবেঅনলাইনে ক্লাশ করে ঘুম এসে পরছে।


নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ছাত্রী বলেন,সত্যি বলতে কি প্রিয় ক্যাম্পাসের চাইতে প্রিয় মানুষটাকে বেশি মিস করছি। আমারমনে হচ্ছে এক যুগ হলো তাকে দেখিনা। এদিকে বাসায় আমাকে বিয়ের জন্যও চাপ দেওয়া হচ্ছে। এইসব নানাবিধ সমস্যারসমাধান এবং প্রেম টিকিয়ে রাখতে ক্যাম্পাসে ফিরতেই হবে।

Post a Comment

0 Comments