চারদিকে গুঞ্জন বার্সা ছেড়ে সিটিতে যাচ্ছেন মেসি

 মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার গুঞ্জনটা শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই আলোচনা কোথায় হবে তার সম্ভাব্য গন্তব্য? এ নিয়ে আগ্রহের শেষ নেই মেসির ভক্তদের। সবচেয়ে বেশি গুঞ্জন উঠেছে এই সিটিকে নিয়েই। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এ সময়ে মেসির চড়া বেতন দেওয়ার মতো ক্ষমতা যে কয়টি ক্লাবের রয়েছে তার মধ্যে একটি সিটি। তাই রেডিও কাতালুনিয়ার সংবাদ উড়িয়ে দেওয়াও কঠিন।


শেষ পর্যন্ত বার্সেলোনা ছাড়ার ঘোষণা জানিয়ে দিয়েছেন লিওনেল মেসি। কাতালান ক্লাবে আর থাকতে চান না। আগের দিন বোমা ফাটানোর এ সংবাদ প্রকাশ করে আর্জেন্টাইন সংবাদমাধ্যম টিওয়াইসি স্পোর্টস। তবে রেডিও কাতালুনিয়া জানিয়েছে, এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা মেসি ভাবছিলেন আরও সপ্তাহ খানেক আগে থেকেই। এমনকি ভবিষ্যৎ গন্তব্যও ঠিক করে রেখেছেন। ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার সঙ্গে আগেই এ প্রসঙ্গে আলোচনাও করেছেন বার্সা অধিনায়ক।

শুধু রেডিও কাতালুনিয়াও নয়, ইএসপিএনের সাংবাদিক রদ্রিগো ফায়েজ ও মোসেস লোরেন্সও জানিয়েছেন একই কথা। গত সপ্তাহেই গার্দিওলার সঙ্গে ফোনে আলোচনা করেন মেসি। এ আর্জেন্টাইন তারকাকে সব ধরণের সহায়তা করার কথা জানান সিটি কোচ। তখন থেকেই ফিফার ফেয়ার প্লের নিয়ম মেনে মেসিকে দলে টানার ছক কষছে তারা।

রেডিও কাতালুনিয় তারা জানিয়েছে, আগের সপ্তাহেই নিজের ভবিষ্যৎ নিয়ে সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার সঙ্গে আলোচনা করেন মেসি। তার উত্থানের শুরুটা এ কচের হাত ধরেই। তার অধীনে ২০০৮ সাল থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত খেলেছেন বার্সা অধিনায়ক। বার্সেলোনা ছাড়লে তাকে নেওয়ার মতো ক্ষমতা সিটির রয়েছে কি-না তা জানতে চান ৩৩ বছর বয়সী এ আর্জেন্টাইন তারকা। সিটি কোচ তাকে আশ্বস্ত করেন। প্রয়োজনে ৩০০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করার সামর্থ্যের কথা জানান। এরপরই না-কি নিজের সিদ্ধান্ত নেন মেসি।

গার্দিওলার দায়িত্ব নেওয়ার পর ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে দুইবার শিরোপা জিতেছে সিটি। চলতি সদ্য শেষ হওয়া মৌসুমে অবশ্য লিভারপুলের পিছে থেকে দ্বিতীয় স্থান লাভ করে। তবে ক্লাবটির মূল লক্ষ্য থেকে এখনও অনেক আছেন গার্দিওলা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে আহামরি সাফল্য পাচ্ছে না তারা। তাই মেসিকে দলে টেনে সে অধরা স্বপ্ন পূরণ করতে চান এ কাতালান কোচ।


Post a Comment

0 Comments