মতলবে নদীপথে ট্রলারে নাচানাচি করার সময় যুবকদের সাউন্ড বক্স জব্দ করল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

করোনা ভাইরাস দিয়ে নদী তরুন যুবকদের নদীপথে নৌকা নিয়ে ঈদের দিন থেকেই উৎপাত আর উদ্দম নাচানাচি করছে। তাদেরএই নদীপথের পাশাপাশি ছোট ছোট পিকআপ গুলিকে নিয়ে রাস্তাঘাটে রাজত্ব করে বেড়াচ্ছে অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করছে যা সত্যিইবেদনাদায়ক ছিল। এবার এই রকম কিছু যুবককে শাস্তি দিলেন মতলব উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক।


নদীমাতৃক আমাদের এই বাংলাদেশ অপরূপ সুন্দর।চাঁদপুরের মতলব যেন নদী বেষ্টিত একটি দীপ। বর্ষার পানিতে ঈদের ছুটিতেএসে মানুষ পরিবার-পরিজন নিয়ে আগে নৌকোতে করে নদীতে ভ্রমণ করতো কিন্তু এখন বিপদ গামী যুবক এদের কারণে নদীপথেনৌকোতে করে ফ্যামিলিকে নিয়ে ঘুরতে পারছিলনা মতলবের মানুষ। বখাটেদের উৎপাত এতটাই বেড়ে গেছে যা সহ্য করামুশকিল ছিল।


এবার মতলব দক্ষিণ উপজেলায় পরশু ঈদুল আযহা উপলক্ষে ধনাগোদা নদীতে স্কুল পড়ুয়া কিশোরদের ট্রলারে জীবনের ঝুঁকিনিয়ে বিকট শব্দে সাউন্ড বক্স বাজিয়ে ভারসাম্যহীন নাচানাচি করতেছিল। এতে করে কিশোররা মারাত্বক দুর্ঘটনার শিকার হতেপারত।  আগষ্ট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদা হক মাছুয়াখাল এলাকায় বন্যার্ত পরিবারের মাঝে শুকনো খাবারবিতরনের সময় বিষয়টি নজরে পড়লে তাৎক্ষনিক মুহুর্তে ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়।


ধনাগোদা নদীর মাছুয়াল নামক স্থানে ট্রলারজেনারেটর  সাউন্ড সিস্টেম জব্দ করা হয়। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফাহমিদাহক জানানঅভিভাবকরা সচেতন না থাকায় অল্প বয়সের ছেলেরা বেপরোয়াভাবে ট্রলারযোগে ঘুরছে। আমি তাদেরকে দেখতেপেয়ে ট্রলারটি আটক করি। ট্রলারে থাকা অধিকাংশদের  থেকে ১২ বছর।  ব্যাপারে অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে। না হয়বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। ট্রলারে থাকা কিশোরদের সতর্ক করে ছেড়ে দেওয়া হয় এবং তাদের সাঊন্ড সিস্টেম আটকেরাখা হয়।

Post a Comment

0 Comments