কবি-গুরু প্রেম নিয়ে এ কেমন কবিত লিখলেন ?

 "যখন পড়বে না মোর পায়ের চিহ্ন এই বাটে,

বাইব না মোর খেয়াতরী এই ঘাটে", 

"চিরকাল রবে মোর প্রেমের কাঙাল,
     এ কথা বলিতে চাও বোলো"। 



বিখ্যাত বিখ্যাত নানা প্রেমের কবিতা লিখে কবি গুরু আমাদের মাঝে অমর হয়ে আছেন। যুগ থেকে যুগ যুগান্তরে প্রেমকে স্মৃতিতে ধরে রাখতে আমরা এখনো কবি গুরুর অমর প্রেমের কবিতাগুলো দারুন ছন্দে গেয়ে যাই।

কিন্তু সম্প্রতি একাধিক প্রেম নিয়ে কবি গুরুর রচিত একটি কবিতা "বারো ভাতারি" কবিতার কয়েক লাইন নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। অনেকেই বলছে এটা নাকি কবি গুরুর বিখ্যাত "বারো ভাতারি" কবিতার লাইন।

কবিতার লাইনগুলো ছিলো ঠিক এমন -

"১১ টি প্রেম করে থেমে যাও
কারন, কেউ যাতে তোমাকে
১২ ভাতারি বলতে না পারে"। 🥵🥵🗣🙏🙏

এ লাইনগুলো নিয়েই সাহিত্য ও মিডিয়া পাড়ায় ব্যাপক আলোচনা সৃষ্টি হয়েছে।

প্রশ্ন উঠেছে, কেনো ১১ টি প্রেম করে থেমে যেতে হবে?? বারো *তারি এটা আবার কারো কারো কাছে পরিচিত নাম ও হতে পারে।

ফেইসবুক ও অন্যান্য মিডিয়ায় এই বারো ভাতারি শব্দটি বেশি ব্যবহৃত হয়। বিশেষ করে যখন কোনো লুচু মানুষ কয়েক জনের সাথে এক সাথে প্রেম করে।

তাছাড়া আবার যারা বলে, বিশ্বাস করো রাজন আমার বয় ফ্রেন্ড, আর রাব্বী আমার জাস্ট ফ্রেন্ড, সাইফুল আমার বেস্ট ফ্রেন্ড।
মূলতো এ ধরনের লোকদের কেই বারো ভতারি বলে চিহ্নিত করা হয়ে থাকে।

কবি গুরু বার বার করে তার কবিতায় বলেছেন বারো ভাতারি যে, সোগা মারা খায় সে,
‘১০ টি প্রেম করে লিজেন্ড হও,
‘১১ তম প্রেমে সাবধান হও।

তাই একজন প্রকৃত প্রেমিক হিসেবে আপনার একটি প্রেম করা উচিত, লুচু প্রেমিক হওয়া যাবেনা। 

Post a Comment

0 Comments