শুক্র গ্রহকে নিজেদের বলে দাবি করছে রাশিয়া

 


গত সপ্তাহে রাশিয়ান মহাকাশ কর্পোরেশন রোসকোমমসের প্রধান দিমিত্রি রোগোজিন বলেছেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে যৌথ মিশন ছাড়াও তারা শুক্র গ্রহে নিজস্ব মিশন পাঠানোর পরিকল্পনা করেছে।

শুক্রকে নিজেদের গ্রহ বলে দাবি করেছে রাশিয়া। রুশ মহাকাশ গবেষণা সংস্থা রসকসমসের প্রধান এ দাবি করেন।

হেলিকপ্টার শিল্পের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী হেলিরাশিয়া ২০২০-তে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মঙ্গলবার মস্কোতে এসব কথা জানান তিনি।

রাশিয়ান মহাকাশ কর্পোরেশনের প্রধান বলেন, ‘আমরা মনে করি শুক্র গ্রহ রাশিয়ার একটি গ্রহ। সুতরাং আমাদের পিছিয়ে থাকা উচিত নয়।’

সম্প্রতি একদল বিজ্ঞানী শুক্র গ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব রয়েছে বলে ধারণা করার পরই এমন দাবি করলো রাশিয়া। গ্রহটিতে পৃথিবীর মত ফসফিন গ্যাস আছে বলে বিজ্ঞানীরা আশাবাদী। গত সোমবার এ বিষয়ে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশিত হয় নেচার অ্যাস্ট্রনমি সাময়িকীতে।

রয়টার্স জানিয়েছে, আন্তর্জাতিক গবেষক দল প্রথমে হাওয়াই দ্বীপে স্থাপিত জেমস ক্লার্ক ম্যাক্সওয়েল টেলিস্কোপে শুক্র গ্রহের মেঘপুঞ্জে ফসফিন গ্যাস দেখতে পান। এরপর চিলির আতাকামা মরুভূমি থেকে এএলএমএ রেডিও টেলিস্কোপ দিয়ে তা নিশ্চিত হন।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, মঙ্গল নয়, পৃথিবীর সব থেকে কাছের শুক্র গ্রহেই মিলতে পারে প্রাণের অস্তিত্ব। এই বিবৃতি প্রকাশের পরই রাশিয়া শুক্রকে তাদের গ্রহ দাবি করে।

Post a Comment

0 Comments