চাঁদপুরের কৃতি সন্তান সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুতে বিপাকে পড়েছে তার পরিবার

 ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের নিয়ে এখন আমি কোথায় যাবোঃ বললেন সাদেক বাচ্চুর স্ত্রী ।পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি ছিলেন সদ্যপ্রয়াত অভিনেতা সাদেক বাচ্চু। দুই ময়ে এক ছেলেকে নিয়ে এখন সাদেক বাচ্চুর স্ত্রী শাহনাজ যেন মাঝদরিয়ায় পড়লেন। সাদেক বাচ্চুর মৃত্যুর একদিনই পরই চোখে অন্ধকার দেখছেন তিনি। কিভাবে যাবে আগামী দিন? স্বামী হারানোর শোক কাটিয়ে ওঠার আগেই ভাবতে হচ্ছে তাকে।



শাহনাজ বলেন,  'ছোট ছোট বাচ্চাদের নিয়ে আমি এখন কী করবো, কিভাবে চলব, কিছুই ভেবে পাচ্ছি না,' -কঁদো কাঁদো কন্ঠে বলছিলেন শাহনাজ। তিনি বলেন, 'ডাক বিভাগের চাকরি থেকে অবসর নেওয়ার পর কিছু টাকা সঞ্চিত হয়েছিল। কিন্তু সাত বছর আগে ২০১৩ সালে ব্রেনস্ট্রোকে আক্রান্ত হয়ে লাইফ সাপোর্টে ছিলেন ৯ দিন। সে সময় ৩০ লাখ টাকা বিল দিয়ে তাকে সুস্থ করে নিয়ে এসেছিলাম। তখন পেনশনের সব টাকাই শেষ হয়ে যায়। সংসার চলছিল ওনার পেনশনের টাকায়। অভিনয়ের পারিশ্রমিক কিছুটা সহায়তা করেছে। এখন আমি বাচ্চাদের নিয়ে কোথায় যাব?আমাদের একমাত্র থাকার জায়গা ছাড়া কোনো জায়গাই নেই। 


সাদেক বাচ্চুর দুই মেয়ে ও এক ছেলে। বড় মেয়ে মেহজাবীন এবার এইচএসসি প্রথম বর্ষে; আরেক মেয়ে নওশিন দশম শ্রেণিতে পড়ে। আর ছেলে সোয়ালেহিন সবে ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়ছে ।


চলচ্চিত্র পরিবারের কাছে যে সহায়তার আশা করব, এখন তো বাংলাদেশে চলচ্চিত্র কমে গেছে। সংগঠনগুলোর কাছ থেকে এই সময়টায় সহায়তা আশা করতে পারি না। আসলে শেখ হাসিনার সরকার ছাড়া তো আর কেউ আমাদের পাশে দাঁড়াতে পারে না এখন। শুনেছি উনি দুস্থ শিল্পীদের সহায়তা করেন। আমার স্বামীর সহায়তার প্রয়োজন হয়নি। কিন্তু এখন আমাদের পরিবারটা কি এভাবে ভেসে যাবে?'

Post a Comment

0 Comments