পেয়াজের দাম বাড়ানো শিখতে বাংলাদেশে আসছেন বিদেশি ব্যাবসায়ীরা

 পেঁয়াজ ব্যবসার কলাকৌশল শিখতে এক হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়ে ঢাকায় আসছেন বিশ্বের শীর্ষ দুই -কর্মাস প্রতিষ্ঠানআমজান  আলবাব-এর প্রতিনিধিরা। বাংলাদেশের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের সাফল্য দেখে  সিদ্ধান্ত নিয়েছেন আমজান-এরমালিক জেফজোস  আলবাব-এর মালিক জ্যাক চা।




 বিষয়ে আমজান-এর এক মুখপাত্র রসময়কে বলেন, ‘আমরা জানতে পেরেছিবাংলাদেশের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীরা এই ঝাঁজালপণ্যটির দাম বাড়িয়ে একযোগে ১৬ কোটি মানুষকে কাঁদাতে পারেন। দরিদ্র মানুষের কষ্টের টাকায় তারা দ্রুত বিপুল সম্পদেরমালিক হচ্ছেন। এক রাতের ব্যবধানেও নাকি কোটিপতি হয়ে যান। আমজান-এর মালিক জেফজোস নিজেও বড় লোক হওয়ারএমন অভিনব পদ্ধতি ইতিপূর্বে জানতেন না।


তিনি বলেন, ‘সম্প্রতি ঢাকা থেকে কিছু ঈলিশ রপ্তানি হওয়ার পরই নাকি বাংলাদেশে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে। দাম বাড়ানোর এইকৌশল শিখতে জেফজোস উদগ্রীব হয়ে পড়েছেন। তবে যে পেঁয়াজ একসঙ্গে ১৬ কোটি মানুষকেই কাঁদিয়ে ছাড়ে সেই পেঁয়াজেরঝাঁজ সইতে পারা নিয়ে জেফজোস শঙ্কিত। এজন্য বিশেষ ধরণের চশমা  মাস্ক তৈরি করা হচ্ছে। বাংলাদেশের এই পেঁয়াজব্যবসায়ী যে কাঁচামাল দিয়ে তৈরি আমরা সেই কাঁচামাল দিয়ে মাস্ক  চশমা তৈরি করছি। এজন্য সফর বিলম্বও হতে পারে।



এছাড়া বিশ্বের সবচেয়ে দামি পেঁয়াজ ব্যবসায়ী হিসেবে বাংলাদেশের পেঁয়াজ ব্যবসায়ীদের নাম গিনেজ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডে তালিকাভুক্তকরতে প্রতিষ্ঠানটির কাছে আবেদন জানানো হয়েছে বলেও জানিয়েছেন পেঁয়াজরাজ। গিনেজ ওয়ার্ল্ডে নাম ওঠা মাত্রই রসময়কেসবার আগে জানাবেন তিনি। রসময় খবর পাওয়া মাত্রই পাঠকের উদ্দেশে সংবাদটি প্রকাশ করবে।

Post a Comment

0 Comments