নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় মসজিদে তবে কি গ্যাস লিক করে এসি ব্লাস্ট হল

 নারায়ণগঞ্জ,খানপুরতল্লা বড় মসজিদে গ্যাস লিক করে এসি ব্লাস্ট হয়ে আগুনে জ্বলসে গেছে অর্ধ শতাধিক মানুষ নিহত হয়েছেন অনেক।

 মাস আগেই গ্যাস লাইন লিকেজ মেরামতের জন্য লিখিতভাবে অভিযোগ জানানো হলেও ৫০ হাজার টাকার জন্য কাজকরেনি তিতাস। এমনটাই অভিযোগ নারায়ণগঞ্জ পশ্চিম তাল্লা বায়তুল সালা জামে মসজিদ কমিটির। এবিষয়ে তদন্ত চলছেকেউ দায়ী হলে তার বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান তিতাসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এদিকেবিস্ফোরণেরঘটনায় তিনটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।



বিস্ফোরণে মসজিদের সবগুলো জানালার কাচ উড়ে যায়। দগ্ধ মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বাইরে ছুটে এসে রাস্তায় জমে থাকাপানিতে গড়াগড়ি খেতে শুরু করে।



গ্যাস লিকেজের লাইন ঠিক করতে  মাস আগে তিতাসকে জানানো হলেও ৫০ হাজার টাকা ঘুষ না দেয়ার কারণে কাজ হয়নিবলে দাবি মসজিদ কমিটির সভাপতির। নারায়ণগঞ্জ পশ্চিম তল্লা বাইতুল সালাহ জামে মসজিদের সভাপতি আব্দুল গফুরমেম্বার বলেনযখন থেকেই গ্যাস লাইন লিকেজ হতে থাকে এটি মেরামত করার জন্য আমরা সাথে সাথেই কিন্তু তিতাসকেজানিয়েছি। তখন তারা আমাদের কাছে ৫০ হাজার টাকা চাইছিলআমরা টাকাটা যোগাড় করতে পারি নাই বলে সেটী আরমেরামত করা হয়নি।


এদিকেগ্যাস লিকেজ ধরেই তদন্ত চলছে বলে জানিয়েছে ফায়ার সার্ভিসের উপ পরিচালক  তদন্ত কমিটির সদস্য সচিব নূরহাসান। তিনি বলেনআমরা আলামত সংগ্রহ করছি। প্রত্যক্ষদর্শীদের সঙ্গে আমরা কথা বলছি। গ্যাস লিকেজ এবং বিদ্যুৎ এরবিষয় মাথায় রেখেই আমরা তদন্ত কার্যক্রম এগিয়ে নিচ্ছি।

Post a Comment

0 Comments