ফাঁসিতে ঝুলার আগে মেসির হাতে বিশ্বকাপ ট্রফি দেখে যেতে চান মিন্নি

 বরগুনার আলোচিত রিফাত হত্যার দায়ে বউ মিন্নি সহ আরো  জনকে ফাঁসির রায় ঘোষণা করেছে আদালত। আদালতে মিন্নির ফাঁসির রায় কার্যকর করার পর তার জীবনের শেষ মুহূর্তে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বেংগর নিউজ ২৪ ডটকম রিপোর্টার জানতে পারেনফাঁসিতে ঝোলানোর আগে তিনি মেসির হাতে বিশ্বকাপ ফুটবলের ট্রফি দেখতে চান।





বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বরজেলা  দায়রা জজ আদালতের বিচারক আসাদুজ্জামানের আদালতে  রায় ঘোষণা করা হয়।

ফাঁসির আদেশ পেয়েছেন রিফাত ফরাজিআল কাইউম ওরফে রাব্বি আকনমোহাইমিনুল ইসলাম সিফাতরেজওয়ান আলীখান হৃদয় ওরফে টিকটক হৃদয়মোহাসানআয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি।

খালাস পেয়েছেন মোমুসারাফিউল ইসলাম রাব্বিমোসাগর এবং কামরুল ইসলাম সাইমুন।



রায় ঘোষণার সময় বিচারক বলেনপাঁচজনের সহযোগী হিসেবে রিফাত শরীফ হত্যায় অংশ নিয়েছেন স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকামিন্নি। একই সঙ্গে তারা ছয়জন রিফাতের মৃত্যু নিশ্চিত করেছেন। এজন্য কলেজগেটের সামনে সময়ক্ষেপণ করেন মিন্নি।রিফাতকে যখন মারার জন্য আসামিরা নিয়ে যাচ্ছিল তখন স্বাভাবিক ছিলেন মিন্নি। এতেই প্রমাণিত হয়মিন্নি হত্যা ষড়যন্ত্রেলিপ্ত ছিল। তারই পরিকল্পনায়  হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। এজন্য তাকেও ফাঁসি দেয়া হয়েছে।



২০১৯ সালের ২৬ জুন বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে মানুষের উপস্থিতিতে স্ত্রীর সামনে রিফাত শরীফকে (২৫কুপিয়ে হত্যাকরা হয়। পরে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার একটি ভিডিও ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ঘটনার পরদিন ১২ জনের নাম উল্লেখ করেঅজ্ঞাত আরও পাঁচ-ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন রিফাতের বাবা আবদুল হালিম দুলাল শরীফ।


 গত  সেপ্টেম্বর রিফাত শরীফ হত্যা মামলায় রিফাতের স্ত্রী মিন্নিসহ ২৪ জনের বিরুদ্ধে বরগুনার সিনিয়র জুডিশিয়ালম্যাজিস্ট্রেট আদালতে দুই ভাগে বিভক্ত অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। একই সঙ্গে রিফাত হত্যা মামলার এক নম্বর আসামি নয়নবন্ড বন্দুকযুদ্ধে নিহত হওয়ায় তাকে মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। নৃশংসভাবে রিফাতকে কুপিয়ে হত্যার বহুল আলোচিত মামলায় পুলিশ যে ২৪ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দিয়েছিলতাদের মধ্যে ১০ জনের বিচার চলে জজ আদালতে। বাকি ১৪ জনঅপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের বিচার চলছে বরগুনার শিশু আদালতে আলাদাভাবে।

Post a Comment

0 Comments