নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে বিবস্ত্র করে নারী নির্যাতন ও ভিডিও করায় ৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে বিবস্ত্র করে নারী নির্যাতন  ভিডিও ভাইরালের ঘটনায় মামলার এজহারভুক্ত রাজু সহ ০৪ আসামিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সোমবার ( অক্টোবররাত দুইটার দিকে রাজুকে ঢাকার শাহবাগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়।



এছাড়া ঘটনায় নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের একলাশপুর ইউনিয়ন পরিষদের  নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য মোয়াজ্জেম হোসেন ওরফেসোহাগকে (৪২গ্রেফতার করা হয়েছে। 


প্রসঙ্গত গত  সেপ্টেম্বর রাতে ওই নারীর আগের স্বামী তার সঙ্গে দেখা করতে তার ঘরে ঢোকেন। বিষয়টি দেখে ফেলে স্থানীয়মাদক ব্যবসায়ী  দেলোয়ার বাহিনীর প্রধান দেলোয়ার। রাত ১০টার দিকে দেলোয়ার তার লোকজন নিয়ে ওই নারীর ঘরে প্রবেশকরে পরপুরুষের সঙ্গে অনৈতিক কাজ  তাদের কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় তাকে মারধর শুরু করেন। একপর্যায়ে পিটিয়ে নারীকেবিবস্ত্র করে ভিডিও ধারণ করে।  অক্টোবর দুপুরে ওই ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে দেশব্যাপী তোলপাড়সৃষ্টি হয়।


এদিকে নির্যাতিত নারী বাদী হয়ে সোমবার রাতে - জন অজ্ঞাতনামাসহ নয়জনকে আসামি করে পর্নোগ্রাফি আইনে বেগমগঞ্জমডেল থানায় মামলা করেছেন। এর আগে নারী  শিশু নির্যাতন আইনে একই থানায় ওই ব্যক্তিদের আসামি করে আরেকটিমামলা করা হয়।



এর আগে সোমবার সকালে মামলার ১নং আসামি বাদলকে ঢাকা থেকে  স্থানীয় দুর্ধর্ষ কিশোর গ্যাং লিডার  দেলোয়ারবাহিনীর প্রধান দেলোয়ারকে নারায়ণগঞ্জ থেকে আটক করে র‌্যাব-১১। আটক বাদল (২২একলাশপুর ইউনিয়নের ৯নংওয়ার্ডের মধ্যম একলাশপুর গ্রামের মোহর আলী মুন্সিবাড়ির রহমত উল্যার ছেলেদেলোয়ার একই গ্রামের কামাল উদ্দিন ব্যাপারীবাড়ির সাইদুল হকের ছেলে।  ছাড়া একলাশপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের জয়কৃষ্ণপুর গ্রামের খালপাড় এলাকার হারিদনভূঁইয়াবাড়ির শেখ আহম্মদ দুলালের ছেলে মোরহীম (২০ একই এলাকার মোহর আলী মুন্সিবাড়ির মৃত আবদুর রহীমের ছেলেমোরহমত উল্যাহকে (৪১গ্রেফতার করে পুলিশ।

Post a Comment

0 Comments