মতলবে করোনায় আক্রান্ত হয়ে অকালে মারা গেলেন তরুণ স্বাস্থ্যকর্মী রাশেদুজ্জামান সবুজ

 

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে অকালে চলে গেলেন তরুণ স্বাস্থ্যকর্মী রাশেদুজ্জামান সবুজ। মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের এনায়েতনগর কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি(স্বাস্থ্যকর্মী) রাশেদুজ্জামান সবুজ সবাইকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।



১৮ জানুয়ারি সোমবার রাত সাড়ে ১১টার সময় ঢাকার মহাখালি আইসিডিডিআরবি হাসপাতালে করোনায় পজেটিভ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন, (ইন্না লিল্লাহি… রাজিউন)। সে উপজেলার লুধুয়া গ্রামের রুহুল আমিন মিয়াজি বড় ছেলে।

মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৩৬ বছর। রাশেদ সাড়ে ৪ মাস বয়সী এক সন্তানের জনক। মৃত্যুকালে রাশেদ সাড়ে ৪ মাস বয়সী তার এক শিশুসহ স্ত্রী, বাবা-মা,২ ভাই ও ২ বোনসহ অসংখ্য আত্মীয় স্বজন রেখে গেছেন।

পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আওতাধীন এনায়েতনগর কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি রাশেদুজ্জামান সবুজ করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথমে মতলব উত্তর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে, এরপর চাঁদপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন। এরপর তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে গত (৩০ ডিসেম্বর) ঢাকার মহাখালি আইসিডিডিআরবি হাসপাতালে ভর্তি হন। এ হাসপাতালে ২০ দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় গত ১৮ জানুয়ারি সোমবার রাত ১১ টা ৩০ মিনিটের সময় সে মাত্র সাড়ে ৪ মাস বয়সী তার একমাত্র ছেলে সন্তান,স্ত্রী ও বাবা-মাকে কাঁদিয়ে চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

তার এই মৃত্যুতে তার পরিবার, স্বাস্থ্যকমপ্লেক্স, বন্ধুমহল,তার রাজনৈতিক সংগঠন ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

এসময় তারা রাশেদুজ্জামানের স্মৃতি চারণ করতে গিয়ে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। তার বাবা রুহুল আমিন মিয়াজী নিজ সন্তানের বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।

Post a Comment

0 Comments